আমি বললাম, আমি ব্যর্থ।
আল্লাহ বললেন, বিশ্বাসীরা সফল হয়। (কোরআন ২৩ঃ১)

আমি বললাম, আমার জীবনে অনেক কষ্ট।
আল্লাহ বললেন, নিশ্চয়ই কষ্টের সাথে আছে স্বস্তি। (কোরআন ৯৪ঃ৬)

আমি বললাম, আমাকে কেউ সাহায্য করে না।
আল্লাহ্ বললেন, মুমিনদের সাহায্য করা আমার দায়িত্ব। (কোরআন ৩০ঃ৪৭)

আমি বললাম, আমি দেখতে খুবই কুৎসিত।
আল্লাহ্ বললেন, আমি মানুষকে সৃষ্টি করেছি সুন্দরতম আকৃতিতে। (কোরআন ৯৫ঃ৪)

আমি বললাম, আমার সাথে কেউ নেই।
আল্লাহ্ বললেন, ভয় করো না আমি তোমার সাথে আছি। (কোরআন ২০ঃ৪৬)

আমি বললাম, আমার পাপ অনেক বেশি।
আল্লাহ্ বললেন, আমি তওবাকারীদেরকে ভালোবাসি। (কোরআন ২ঃ২২২)

আমি বললাম, আমি সবসময় অসুস্থ থাকি।
আল্লাহ্ বললেন, আমি কোরআনকে রোগের নিরাময় হিসেবে পাঠিয়েছি। (কোরআন ১৭ঃ৮২)

আমি বললাম, এই দুনিয়া আমার ভালো লাগে না, আমার কিছুই নেই।
আল্লাহ্ বললেন, তোমার জন্য পরকাল ইহকাল অপেক্ষা শ্রেয়। (কোরআন ৯৩ঃ৪)

আমি বললাম, বিজয় অনেক দূরে।
আল্লাহ্ বললেন, আমার সাহায্য একান্তই নিকটবর্তী (কোরআন ২ঃ২১৪)

আমি বললাম, আমার জীবনে খুশি নেই।
আল্লাহ্ বললেন, শীঘ্রই তোমার রব এত বেশি দিবেন যে তুমি খুশি হয়ে যাবে। (কোরআনঃ৯৩ঃ৫)

আমি বললাম, আমি সবসময় হতাশ।
আল্লাহ্ বললেন, আর তোমরা নিরাশ হয়ো না এবং দুঃখ করো না। (কোরআন ৩ঃ১৩৯)

আমি বললাম, আমার কোন পরিকল্পনা সফল হচ্ছে না।
আল্লাহ্ বললেন, আল্লাহ সর্বোত্তম পরিকল্পনাকারী। (কোরআন ৩ঃ৫৪)

আমি বললাম, প্রিয় জিনিষটি পেলাম না।
আল্লাহ্ বললেন, তোমরা হয়তো এমন জিনিসকে পছন্দ করছো, যা তোমাদের জন্য অকল্যানকর।
(কোরআন ২ঃ২১৬)। অবশ্যই তুমি পাবে যা তোমার থেকে চলে গেছে, অথবা তার চেয়েও উত্তম। (সূরাঃ আনফাল আয়াতঃ ৭০)

আমি বললাম, সুখ কখন আসবে?
আল্লাহ বললেন, আল্লাহ কষ্টের পরেই সুখ দেবেন (কোরআন ৬৫ঃ৭)। সূরা ইনশিরাহতে পর পর দুবার আল্লাহ বললেন, ফাইন্না মা‘আল ‘উছরি ইউছরা। কষ্টের সাথেই তো স্বস্তি আছে। ইন্না মা‘আল ‘উছরি ইউছরা। অবশ্যই কষ্টের সাথে স্বস্তি আছে। (কোরআন ৯৪: ৫ ও ৬)